শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
সময়ের চোখ ডট নেট ওয়েবসাইটে আপনাদের স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। সময়ের চোখ ডট নেট অনলাইন নিউজ পোর্টালের কর্মরত সকল সাংবাদিকদের ই-মেইলে নিউজ পাঠাতে অনুরোধ করা হলো।
সংবাদ শিরোনাম ::
সালথায় নির্বাচনী আচরণ বি‌ধি লংঘন করায় দুই প্রার্থী‌কে শোকজ নিরোপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে কারো কোন হুমকি ধামকি চলবে না-পুলিশ সুপার আলিমুজ্জামান নগরকান্দায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী যাচাই বাছাই সম্পন্ন ফরিদপুর হিন্দু পরিষদ ও জাতীয় হিন্দু মহাজোট উদ্যোগে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত । সাপাহারে ফাইনাল ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত সালথায় মেজর (অবঃ) আতমা হালিমের উদ্যোগে শেখ রাসেলের জন্মদিন পালিত কোটালীপাড়ায় চেয়ারম্যানের কক্ষে ডেকে নিয়ে ২ সাংবাদিককে হুমকি নগরকান্দায় সাংবাদিকের উপর হামলার চেষ্টা, গণধোলাই খেয়ে পালালো দূর্বৃত্তরা মুকসুদপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি মুকসুদপু‌রে চোলাই মদসহ যুবক আটক

আসন্ন নগরকান্দা পৌরসভা নির্বাচনে শেষ মুহুর্তের ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ২.২০ পিএম
  • ৮৪ বার পঠিত

বেলায়েত হোসেন লিটন :
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের ঘোষনা অনুযায়ী চতুর্থ ধাপে ১৪ ই ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে নগরকান্দা পৌরসভার নির্বাচন। বাকি রয়েছে আর মাত্র চারদিন।

আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে তাই শেষ মুহুতের প্রচারনায় ব্যাস্ত সময় পার করছেন সকল মেয়র, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সির ও সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

ফরিদপুরের নগরকান্দায়
পৌর সদর ও পৌরসভা আওতাধীন সকল গ্রামে প্রচন্ড শীত ও বাতাসে ছড়িয়ে পড়েছে নির্বাচনের আমেজ। সকল চায়ের দোকানসহ সব স্থানেই নির্বাচন নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনার ঝড়। উঠেপরে ভোটের মাঠে নেমে পরেছে শেষ মুহুর্তের প্রচারনায় সকল প্রার্থী ও প্রার্থীদের স্বমর্থিত লোকজন। নগরকান্দা পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিএনপিসহ সতন্ত্র কয়েকজন মেয়র প্রার্থীর সমর্থকেরা নিজ নিজ প্রার্থীর জয়ের ব্যাপারে গুনছেন প্রহর, চাচ্ছেন ভোট নগরকান্দা পৌর সদরসহ পৌর এলাকার সব খানে, সকলের কাছে।

পৌরসভায় ৭.৫৭৪ বর্গকিলোমিটারে ভোটার রয়েছে ৮ হাজার ৬৬৩ জন । পুরুষ ভোটার ৪ হাজার ৩৩৩ জন ও মহিলা ভোটার ৪ হাজার ৩৩০ জন। গত নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হন তৎকালীন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রায়হানউদ্দিন মিয়া। বার্ধক্যজনিত কারণে তিনি মৃত্যুবরণ করলে পদটি শূন্য হয়। ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন নিমাই চন্দ্র সরকার। তিনিই বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী ( নৌকা প্রতীক) হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন। নিমাই চন্দ্র সরকার বলেন আমি পৌর জনগনের পাশে সব সময়ই ছিলাম এবং মেয়র নির্বাচিত হলে তাদের পাশেই থাকবো।

আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সভাপতি কামরুজ্জামান মিঠু ( মোবাইল প্রতীক) ব্যাপক আলোচনায় রয়েছেন। তিনি সাবেক সংসদ সদস্য খায়রুজ্জামান বতু মিয়ার আপন ভাতিজা। পৌর এলাকায় তার একটি পারিবারিক ভোট ব্যাংক রয়েছে। এছাড়াও তিনি মাননীয় সংসদ উপনেতার অতি আস্থাভাজন। ইতিমধ্যে সামাজিক কর্মকা-ে তার অংশগ্রহণ সবার নজর কাড়ে। তিনি ভোটার ও তরুণদের মাঝে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। মিঠু বলেন সুষ্ঠু নির্বাচন হলে সাধারণ ভোটারদের ভোটে আমি জয়ী হবো ইনশাআল্লাহ। মিঠু আরো বলেন, ভোটারাও কোন দলীয় প্রতীকের বাহিরে সতন্ত্র প্রার্থী আমার মোবাইল প্রতীকে সবচেয়ে বেশি ভোট প্রদান করবে বলে আমি মনে করি।কারন ভোটারাই আমাকে এই আশ্বাস দিয়েছেন।

অপরদিকে, পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন দুলু ( নারকেলগাছ প্রতীক) প্রচার প্রচারণার অংশ গ্রহন করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, আমি এর আগে বিপুল ভোটের ব্যাবধানে ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচিত হই। ওয়ার্ড ছাড়াও পৌরবাসীর যেকোনো সমস্যা সমাধানে কাজ করে যাচ্ছি। আশা করি আমি এই নির্বাচনে জয়লাভ করবো ইনশাল্লাহ।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লন্ডন প্রবাসী মাসুদুর রহমান (জগ প্রতীক) বিভিন্ন সামাজিক কাজে অবদান রেখে চলেছেন। তার যোগ্যতা ও দক্ষতা দিয়ে পৌরসভাকে একটি আধুনিক পৌরসভায় রূপান্তরিত করার আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি সকলের দোয়া ও সমর্থন আদায়ে চেষ্টা চালাচ্ছেন।এছাড়া পৌরসভায় বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

সাবেক নগরকান্দা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম ওসমান গনী কালা মোল্যার পুত্র এবং সাবেক মেয়র আলীমুজ্জামান টুলু মোল্যার ভাতিজা মনিরুজ্জামান তুহিনও ( চামচ প্রতীক) পৌরবাসীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ ও সামাজিক কর্মকান্ডে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন আমার পরিবারে পৌরসভার চেয়ারম্যান ও মেয়র ছিলো। সেই সুবাদে আমরা পৌরবাসীর নাগরিক সেবার কাজে অংশ গ্রহন করেছি।আমি নির্বাচিত হতে পারলে সেই ধারাকে আরো বেগবান করবো ইনশাল্লাহ।

অন্যদিকে উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও যুবদলের সভাপতি আলিমুজ্জামান সেলু ( ধানের শীষ প্রতীক ) বিএনপির মনোনীত প্রার্থী। প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।
আওয়ামীলীগের একাধিক প্রার্থী হওয়ায় তার অবস্থান অনেক ভালোই।

এছাড়া রয়েছেন সতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আরিফ আহম্মেদ বিপ্লব ( ইস্ত্রি প্রতীক)। তার মিতা ছিলেন তৎকালীন সমায়ের আওয়ামীলীগের এমপি। তিনিও এ নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।

প্রার্থীরা যার যার অবস্থান থেকে সকলেই জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। তবে নিরপেক্ষ শান্তিপূর্ণ নির্বাচন কাম্য সকল ভোটারসহ সকল শ্রেনীর লোকজনের। ভোটারদের ভোটে মেয়র নির্বাচিত হবে একজন। কিন্তু ভোটারদের আদরের শেষ নেই সকল প্রার্থীদের কাছ থেকে। নগরকান্দা সদর বাজারের হোটেল ব্যাবসায়ী মজিবুর রহমান বলেন এখন ভোটারদের যেরকম আদর বেড়েছ, এই আদর বা ভালবাসা নির্বাচনের পর আর থাকেনা। ভোটাররা ভেবে চিন্তেই যোগ্য ব্যক্তিকেই ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবে বলে আমি মনে করি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

131d5763789044479a781faf3fa13867
© All rights reserved  2021 ‍SomoyerChokh
Theme Download From ThemesBazar.Com