রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৪৬ অপরাহ্ন
নোটিশ :
সময়ের চোখ ডট নেট ওয়েবসাইটে আপনাদের স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। সময়ের চোখ ডট নেট অনলাইন নিউজ পোর্টালের কর্মরত সকল সাংবাদিকদের ই-মেইলে নিউজ পাঠাতে অনুরোধ করা হলো।
সংবাদ শিরোনাম ::
মুকসুদপুরে ব্লক প্রদর্শনীর রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে সমলয় ধানের চারা রোপনের উদ্বোধন করা হয়েছে। মুকসুদপুরে মেয়র প্রার্থীর বিলবোর্ড কেঁটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা বাংলানিউজের ফরিদপুর প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দিলেন হারুন মুকসুদপুরে সংখ্যালঘুদের উপর হামলার ভুয়া নিউজের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন স্বীকৃতি চান মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন স্বীকৃতি চান মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন সালথার বল্লভদী ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার সাইফুর রহমান শাহিনের দায়িত্ব গ্রহণ মুকসুদপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই চেয়ারম্যান সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ । সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১০জন আহত । মুকসুদপুরে যুবতীর সঙ্গে আ.লীগ নেতার অশ্লীল ভিডিও ফাঁসের ঘটনায় তোলপাড় বিজয় দিব‌সে প্রধান শিক্ষক মু‌ক্তি‌যোদ্ধার সন্তান লা‌ঞ্চিত হওয়ার ঘটনায় শিক্ষক মহ‌লের ক্ষোভ

অসময়ের বৃষ্টিতে কৃষকের স্বপ্নভঙ্গ, মুকসুদপুরে রবিশষ্যের ব্যাপক ক্ষতি

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১, ৪.০৩ পিএম
  • ৫১ বার পঠিত

সময়ের চোখঃ
গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদে নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ার কারণে জমিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় কৃষকদের চোখে এখন কষ্টের পানি। দুই দিনের টানা বৃষ্টিতে উপজেলার রবিশষ্য বোরোবীজ, সরিষা, খেসারী, মসুর, গমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ উপজেলার প্রায় চাষী এখন বিপদগ্রস্ত, টানা বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে তাদের স্বপ্ন। চাষিরা বলছেন, গত এক সপ্তাহের মধ্যে যারা বোরোবীজ তলা রোপণ করেছিলেন, তারা বেশ ক্ষতির আশঙ্কায় রয়েছেন। উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্যমতে, এবার উপজেলার মোট ৩৯০ হেক্টর জমিতে বোরোবীজ তলা রোপন করে তার মধ্যে ক্ষতির পরিমান ১২৬ হেক্টর ,এছাড়া সরিষা ১১০০ হেক্টর মধ্যে ২২০, খেসারী ১২৫০ হেক্টর মধ্যে ২৭৫, মসুর ১০৫০ হেক্টরের মধ্যে ৩১৫, গম ৪১৬০ হেক্টরের মধ্যে ৩১২ ও শাক সবজি ৪৮৫ হেক্টরের মধ্যে ১১০ হেক্টর জমিতে রোপনকৃত ফসল পানিতে তলিয়ে নষ্ট হয়েছে। সরিষা চাষী নারায়নপুর গ্রামের জাকির মিয়া জানান, উপজেলার বেশিরভাগ জমি বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে আমি ২ একর জমিতে সরিষা চাষ করেছি তা এখন পানির নিছে। জমিতে পানি সেচের মেশিন লাগিয়ে জমির পানি নিষ্কাশন করতে হবে। উপজেলার পৌরসভার গোপিনাথপুর গ্রামের আনিচ মিয়া বলেন এবার আমি সাড়ে ৫ হেক্টর জমিতে বোরো বিজতলা রোপন করেছি । বৃষ্টির পানিতে আমার সব জমিতেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলা উদ্ভিদ সংরক্ষন কর্মকর্তা রুহুল কুদ্দুস জানায় প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা ক্ষয়ক্ষতির পরিমান এটা পেয়েছি। তবে জমি থেকে পানি নিস্কাশন ও মাঠ পর্যায়ের পূর্নাঙ্গ তথ্য পেতে সময় লাগবে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম জানায়, ‘নিম্নচাপ এবং অসময়ে বৃষ্টির কারণে এ উপজেলায় ফসলে ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। আর যেসব জমিতে সপ্তাহ খানের মধ্যে বীজ লাগিয়েছে তাদের ক্ষতির পরিমান বেশি। তাছাড়া তাৎক্ষনিক সমাধানের জন্য আমাদের কৃষি অফিসের অনেক লোক মাঠপর্যায়ে কাজ করছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

131d5763789044479a781faf3fa13867
© All rights reserved  2021 ‍SomoyerChokh
Theme Download From ThemesBazar.Com